Image default
স্বাস্থ্য

কোন কোন খাবারে আয়রন পাওয়া যায় : শরীরে আয়রনের প্রয়োজনীয়তা

খাদ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে আয়রন দূর করতে পারে রক্ত স্বল্পতার সমস্যা । আর স্বাস্থ্য বিষয়ক সমীক্ষা বলছে, বিশ্বে অধিকাংশ নারী আয়রনের ঘাটতি জনিত রক্ত স্বল্পতায় ভোগেন । আয়রন শরীরে অক্সিজেন চলাচলে সহযোগীতা করে । খাবারে পর্যাপ্ত পরিমাণ আয়রন থাকলে তা শরীরে লৌহের অভাবজনিত রক্ত স্বল্পতা প্রতিরোধ করে । এছাড়াও আয়রন সুস্বাস্থের অধিকারী হতে সহযোগীতা করে । প্রতিদিনের আয়রনের চাহিদা পুরণে প্রাণীজ আয়রন এবং উদ্ভিজ আয়রন এই দুই ধরনের আয়রন গ্রহন করা উচি

 কোন কোন খাবারে আয়রন আছে :
সবুজ শাকসবজি
iron3.jpg
আয়রন যুক্ত শাক-সবজি ও ফল , ছবি-সংগ্রহীত

রান্না করা এক কাপ পালং শাকে ৬ মিলিগ্রাম আয়রন থাকে । কচু শাক ব্রোকলিসহ সব ধরনের গাঢ় সবুজ শাকসবজিতে প্রচুর আয়রন থাকে । খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন সবুজ শাকসবজি রাখলে আয়রনের দৈনন্দিন চাহিদা সহজেই পুরন করা যায় । এছাড়া লাল শাকে প্রচুর আয়রন থাকে ।

প্রাণিজ উৎস

কলিজা আয়রনে ভরপুর একটি খাবার । এছাড়া গরুর মাংস, মুরগির মাংস, ডিম এবং মাছে প্রচুর আয়রন পাওয়া যায় ।

ডালজাতীয় খাবার

ডাল আয়রনের বড় একটি উৎস । এক কাপ ডালে ৬ মিলিগ্রাম আয়রন থাকে । মশুর, ছোলা সহ সব ধরনের ডালেই প্রচুর আয়রন থাকে বিধায় খাবার টেবিলে ডাল নিয়মিত রাখা যেতেই পারে ।

 

সয়াবিন

সয়াবিন আয়রনসহ অনেকগুলো পুষ্টি উপাদানে ভরপুর । নিয়মিত সয়াবিন খেলে হাড় মজবুত থাকে । এছাড়া সয়াবিন হার্ট সুস্থ্য রাখে ও ক্যানসারের ঝুকি কমায় ।

iron4-copy.jpg
আয়রন যুক্ত প্রাণিজ , ছবি-সংগ্রহীত

এছাড়াও মটরশুটি, ডার্ক চকলেট, কিশমিশ, কাজুবাদাম, টমাটো, সিমের বীচি, কুমড়ার বীচিতে প্রচুর আয়রন রয়েছে ।

আরো পড়ুন

ভিটামিন ‘এ ‘ এর উৎস : কোন কোন খাবারে পাওয়া যায়
জেনে রাখা ভাল

আয়রন মূলত ২ প্রকার

১ । হিম-আয়রন :

প্রাণিজ উৎস যেমন- কলিজা, গরুর মাংস, মুরগির মাংস, মাছ, ডিম ইত্যাদি । হিম-আয়রন আমাদের শরীর খুব সহজে শোষণ করতে পারে ।

২ । নন-হিম আয়রন :

উদ্ভিজ্জ উৎস থেকে পাওয়া সব আয়রনই নন-হিম আয়রন । খাবারে হিম-আয়রন অপেক্ষা নন-হিম আয়রন বেশি থাকে । কিন্তু নন-হিম আয়রন শরীরে সহজে শোষণ হয় না ।

শরীরের জন্য আয়রন কেন ও কতটুকু প্রয়োজন :

 

কেন প্রয়োজন –

আয়রন রক্তের হিমোগ্লোবিন তৈরীতে সাহায্য করে । ফলে শরীরে আয়রনের অভাব থাকলে হিমোগ্লোবিন তৈরী হতে পারে না যার ফলে রক্ত স্বল্পতা দেখা দেয় । শরীরে রক্ত স্বল্পতার মতো সমস্যা থাকলে যে অসুবিধাগুলো দেখা দেয়-

১. ক্লান্তিবোধ ।

২. চুল পড়ে যাওয়া ।

৩. মেজাজের ভারসাম্য হারানো ।

৪. অস্থিরতায় ভোগা ।

৫. ত্বকের রং ফ্যাকাশে হয়ে যাওয়া ।

৬. দুর্বলতায় ভোগা ও মাথা ঘোরানো ।

৭. নখ দুর্বল ও ভঙ্গুর হয়ে যাওয়া ।

কতটুকু প্রয়োজন

# প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষের জন্য দৈনিক ৮ মিলিগ্রাম ।

# প্রাপ্ত বয়স্ক মহিলাদের জন্য দৈনিক ১৮ মিলিগ্রাম ।

# গর্ভবতী নারীদের জন্য দৈনিক ২৭ মিলিগ্রাম ।

# যেসব মায়েরা বাচ্চকে দুধ দিচ্ছেন তাদের জন্য ৯ মিলিগ্রাম ।

দৈনন্দিন খাবার তালিকায় আয়রন সমৃদ্ধ খাবার রাখলে আয়রনের দৈনিক চাহিদা পূরণ করা সম্ভব ।
আরো পড়ুন

হাইপো – থাইরয়েড কি : লক্ষণ ও চিকিৎসা ।

Related posts

চুল পড়া রোধের কিছু ঘরোয়া টিপস

jibondharaa

অ্যাজমা বা হাঁপানির প্রাকৃতিক চিকিৎসা এর লক্ষণ ও প্রকারভেদ

jibondharaa

ভিটামিন ডি ঘাটতিজনিত লক্ষণ : ভিটামিন ডি এর উৎস

jibondharaa

Leave a Comment